মেঘ ভাঙা রোদ্দুর

মেঘ ভাঙ্গা রোদ্দুর

শফিকুল ইসলাম

আগামী প্রকাশনী

উৎসর্গ

স্মৃতি পিপীলিকা তাই পুঞ্জিত করে

অমার রন্ধ্রে মৃত মাধুরীর কণা;

সে ভুলে ভুলুক, কোটি মন্বন্তরে

আমি ভুলিব না, আমি কভু ভুলিব না।

সূচিপত্র

আমি অন্ধকার আকাশের তারা, আঁধারের মাঝে জ্বলি একা একা ৫

আমি তো ক্লান্ত এখন খুঁজে খুঁজে একটি সুখের ঠিকানা ৫

সুখের রং আমি চিনি না, সুখের ঠিকানা জানা নাই ৬

হয়ত তুমি নেই আজ আমার দৃষ্টির কিনারায় ৬ আজ ভাবি এত মন্দ আমি ছিলাম না যতটুকু মন্দ ভেবেছ ৭

আজ এখানে এসে সাঙ্গ আজি তোমারে খোঁজার পালা ৭

জীবন নিয়ে এই বিজন ভুবনে একা একা আর পারি না ৮

এক পশলা বৃষ্টিতে হয়ে যায় শরতের আকাশ নির্মল ৮

দূরের বাঁশি শুধু ডাকে আমায় কোন অজানায় ৯

কি করে বুঝাই বলো কত আনন্দ দেয় আমারে তোমার সঙ্গ ৯

সুখের ঠিকানা আজ খুঁজি না, খুঁজি পথের সীমানা ১০ আজ এই আঁধারে ভাবছি যখন তোমারে বুকে নিয়ে বেদনা ১০

ঐ রাতের আকাশের তারারা সাক্ষী তারা জানে ১১

বসন্তের এই মাধবী বনে আমি একা কেউ নেই পাশে ১১

এই জীবনটা যদি আবার প্রথম থেকে ফিরে পেতাম ১২

চলেই যদি গেলে ওগো বন্ধু কেন স্মৃতি রেখে গেলে ১২

নদীর জল জানি একদিন খুঁজে পায় সাগরের মোহনা ১৩

তুমি যে আমার সুখ, আমার কল্পনা ১৩

দুঃখ করি না ভালোবেসে দুঃখ পেয়েছি বলে ১৪

কেন যে এত ভালো লাগে তোমারে আমার ১৪

আজ সারা রাত জেগে জেগে কেবল চিঠি লিখেছি ১৫

এত ভালোবেসে পাইনি তোমার মন রইল দুঃখ কেবল ১৫

দিন চলে যায় সুখের আশায় মেলে না সুখের ঠিকানা ১৬

যারে খুঁজে আমার এ মন আকুল হয়ে কোথায় তার ঠিকানা ১৬

কত পথ ঘুরে নদী খুঁজে পায় একদিন সাগরের মোহনা ১৭

নদীর মতো আমি আজ একাই চলি এখন ১৭

যতবার ভুলে যেতে চাই কেন মনে পড়ে বারেবারে ১৮

আজ কি গান গাব আমি ভাবি এই সুরের সভায় ১৮

যতবার ভাবি আমি আর পিছু ডাকব না ১৯

তোমার আঁখিজলে আমার স্মৃতি মুছে ফেল না ১৯ তোমার হাসি দোলা দিয়ে যাক বন্ধু অধরের কোণে ২০

জানি বন্ধু সুখেই আছ তুমি আজ আমায় ভুলে গিয়ে ২০

ভালবাসার বদলে তোমার কাছে পেলাম আঁখিজল ২১

ভালোবেসে যদি ভুল করে থাকি ক্ষমা করে দিও ২১

আমার ভালোবাসার রঙ মুছে দিয়ে তোমার মেহেদি রাঙা হাতে ২২

যদি দাও এতটুকু অধিকার ২২

ভালোবেসে শুধু তোমার কাছে আঘাত পেলাম ২৩

যদি পারো এসে দেখে যেও একবার ২৩

দিন যায় সুখের আশায় মেলে না সুখের ঠিকানা ২৪

জানি এই পৃথিবীতে চোখের জলেই মিলে মনের দাম ২৪

জানি শুধু দুঃখ দিতে তুমি এসেছিলে আমার জীবনে ২৫

বলে গেছ ভুলে যেতে ভুলতে কই পারলাম ২৫

সময ফুরিয়ে গেছে, ভেঙে গেছে আশার স্বপন ২৬

জানি আমার জীবনে ¯^cœ দেখা শুধুই বিফল ২৬

ভুলে গেছি ভেবে শুধু ভুল করি, ফাঁকি দেই শুধু নিজেকে ২৭

মিছেই বসে আছি খুলে মনের দুয়ারখানি ২৭

এই মন হয় রঙিন তোমার কাছে এসে ২৮

আজ তোমার কথা ভেবে অনেকক্ষণ আমি কাঁদলাম ২৮

যতই সম্মুখের পথে চলি কে যেন পিছু ডাকে ২৯

আমার দু চোখ হাজার ভিড়ের মাঝে ২৯

ভালোবেসে যদি দুঃখ পাই তবুও ৩০

এক বরষায় তুমি ছিলে কত কাছে আমার হায় ৩০

যারে এই মন চায় সে কেন বারে বারে আমায় কাঁদায় ৩১

জানি জানি আসবে না তবু দুয়ার রাখব খুলে ৩১

আমি আঁখিজলে ভালোবাসার মূল্য দিয়ে গেলাম ৩২

আমার আঁখির কাজলের প্রশংসা করল সবাই ৩২

জানি তুমি তো আমায় ভেবেছ কেবল পর ৩৩

চোখের জলে কবে মুছে গেছে আাঁখির কাজল ৩৩

চন্দনা তুমি চলে গেছ ফিরে আসার করে ছল ৩৪

ভুল হয়েছিল বলে ৩৪ তুমি চলে গেছ, তবু বিরহ সুখে ভরে আছে এ হৃদয় ৩৫

সে চলে গেছে, আমায় একা ফেলে গেছে ৩৫

মাধবী তুমি কোথায় আছ কেমন আছ জানি না ৩৬

ভুলে যাওয়ার বন্ধু ওগো জানি ভুলবে আমায় দু দিন যেতে ৩৬

বন্ধু তুমি চিরদিনই আমায় ভাবলে শুধু পর ৩৭ কতবার ভেবেছি ভুলে যাব হলো নাতো ভুলে থাকা ৩৭ দূরে যত চলে গেছ, ততই নতুন করে তোমায় পেয়েছি ৩৮

যেখানে থাকো না যতদূরে তুমি আমারই শুধু জানব ৩৮

জানি এ জীবনে তোমায় পাব না আপন করে কোনদিন ৩৯

আমায় ভুলে গিয়ে বন্ধু তুমি সুখে করছ ঘর ৩৯

কত আঁখিজল ঝরালে আর ৪০

কত পথ ঘুরে নদী খুঁজে পায় একদিন সাগরের মোহনা ৪০

(১)

আমি অন্ধকার আকাশের তারা

আমি অন্ধকার আকাশের তারা,

আঁধারের মাঝে জ্বলি একা একা

আমার গোপন কান্না রাতের গহন আঁধারে থাকে ঢাকা।

নয়নে আমার কত যে আশার ছিল স্বপন

আজ স্বপ্ন আমার ভেঙেছে, ভেঙেছে মন

অশ্রুভেজা আজ এ দুটি আখি কাজল আঁকা।

আলোকের নিচে আঁধারের খবর কেউ রাখে না

কেউ বুঝে না তাই আমার মর্ম বেদনা

আমার মর্মবেদনার সাক্ষী শুধু আমি একা ॥

(২)

আমি তো ক্লান্ত এখন খুঁজে খুঁজে একটি সুখের ঠিকানা

আমি তো ক্লান্ত এখন খুঁজে খুঁজে একটি সুখের ঠিকানা

ভালোবাসার ছায়ায় ঢাকা একটু শ্যামল আঙিনা।

জানি না কেন যে মানুষ এত কৃপণ

এতটুকু ভালোবাসা দিতে কুন্ঠিত মন

যেখানে আশার হাত বাড়াই, পাই শুধু বঞ্চনা।

মনে ভাবি মানুষের কাছে বুঝি আর

হয় তো এর বেশি কিছু নেই পাওয়ার

মনের কামনা মনেই থাকে, চোখের জলে খুঁজি সান্ত্বনা ॥

(৩)

সুখের রং আমি চিনি না, সুখের ঠিকানা জানা নাই

সুখের রং আমি চিনি না, সুখের ঠিকানা জানা নাই

যখন তোমার নয়নে নয়ন রাখি, সুখের সংজ্ঞা খুঁজে পাই।

তোমার নয়নে রেখে নয়ন

হারাই যখন আমার এ মন

তখন ভাবি এই জীবনে মরণ বলে কিছু নাই।

যখন মিষ্টি হেসে কাছে আস

হাতে হাত রেখে পাশে বসো

জীবনের মানে আমি নতুন করে খুঁজে পাই ॥

(৪)

হয়ত তুমি নেই আজ আমার দৃষ্টির কিনারায়

হয়ত তুমি নেই আজ আমার দৃষ্টির কিনারায়

তুমি ছিলে, তুমি আজও আছ আমার আঁখির তারায়।

আমার সুরের পাখি

ব্যাকুল ¯^‡i উঠে ডাকি

আজও খুঁজে তোমারে আমার মনের নীলিমায়।

তুমি নেই আজ নয়নের কাছে

তোমার স্মৃতি মনে জেগে আছে

সেই স্মৃতির মাঝে আজও আমি খুঁজি তোমায় ॥

(৫)

আজ ভাবি এত মন্দ আমি ছিলাম না যতটুকু মন্দ ভেবেছ

আজ ভাবি এত মন্দ আমি ছিলাম না যতটুকু মন্দ ভেবেছ

মন্দ বলে বলে যতটুকু মন্দ আমায় বানিয়েছ।

কখনও তুমি সরল অন্তরে

নাওনি আমায় আপন করে

আমার ভালটুকু তাই দেখনি দোষটুকু ধরেছ।

আমার ভালোবাসা আমার প্রীতি

অনুরাগ আর অনুভূতি

সকলই তুমি তাই সন্দেহের চোখে দেখেছ ॥

(৬)

আজ এখানে এসে সাঙ্গ আজি তোমারে খোঁজার পালা

আজ এখানে এসে সাঙ্গ আজি তোমারে খোঁজার পালা

ওগো বন্ধু আজকে আমার ঘনায়ে এল বিদায় বেলা।

জানি তুমি মায়া মৃগ

পালিয়ে পালিযে বেড়াবে গো

কোনদিন ধরা দেবে নাগো, সইবে না বন্ধন জ্বালা।

ওগো মরীচিকা তোমার পিছে মিছেই ছুটেছি জানি

আজ হৃদয় মাঝে যেটুকু পেয়েছি তাতেই ধন্য মানি।

হৃদয় মাঝে বসায়ে যতনে

পূজা করেছি দেবতা জেনে

না পাওয়ার মাঝে যেটুকু পেয়েছি, তাই নিয়ে হোক পথ চলা ॥

(৭)

জীবন নিয়ে এই বিজন ভুবনে একা একা আর পারি না

জীবন নিয়ে এই বিজন ভুবনে একা একা আর পারি না

মাধুরী তুমি চলে এস তাড়াতাড়ি, দেরি করো না।

নির্জনে একা একা কত আর

গুনব প্রহর অধীর প্রতীক্ষার

মাধুরী তুমি যেখানে থাকো চলে এস, দেরি কর না।

তুমি তো জান না কবেই আমি গেঁথে রেখেছি মালা

বনে বনে ঘুরে ফুলে ফুলে সাজিয়ে এনেছি ডালা।

শুরু হবে এ মধু উৎসব তুমি এলে

বকুল ঝরা পথে আলতো চরণ ফেলে

মাধুরী শুভলগ্ন কখন চলে যায়, চলে এস দেরি কর না ॥

(৮)

এক পশলা বৃষ্টি হয়ে যায় শরতের আকাশ নির্মল

এক পশলা বৃষ্টি হয়ে যায় শরতের আকাশ নির্মল

শত বরষায় ও কি ফুরাবে না আমার আঁখিজল?

হঠাৎ আসা দমকা হাওয়ায়

প্রদীপ শিখা নিমেষে নিভে যায়

শত দীর্ঘশ্বাসেও নিভে না আমার বুকের অনল।

সবই যার হারাল স্মৃতি কেন হারায় না

জীবনের দীর্ঘ পথ আজও ফুরায় না

আজ আমি বসে আছি শেষ দিনটির অপেক্ষায় কেবল ॥

(৯)

দূরের বাঁশি শুধু ডাকে আমায় কোন অজানায়

দূরের বাঁশি শুধু ডাকে আমায় কোন অজানায়

সমুখের পথে যেতে তবু কেন মন পিছু ফিরে চায়।

কার দুটি সজল নয়ন আমার

মনের গভীরে ভেসে উঠে বারবার

আকুল মিনতি ঝরানো কন্ঠে কে পিছু ডাকে আমায় ॥

যাবার পথে কে যেন কাঁদিয়া বলে

যেও না যেও না বন্ধু আমায় একা ফেলে

আমি যে কত যুগ পথ চেয়ে আছি তোমারই আশায় ॥

(১০)

কি করে বুঝাই বলো কত আনন্দ দেয় আমারে তোমার সঙ্গ

কি করে বুঝাই বলো কত আনন্দ দেয় আমারে তোমার সঙ্গ

তুমি যে আমার একান্ত ভাবনার প্রিয় প্রসঙ্গ।

তুমি যখন কাছে থাকো ভরা অমাবস্যাতে

আমার আকাশ ছেয়ে যায় লক্ষ তারাতে

আমার মনের এক তারাতে বেজে উঠে কত ভাব তরঙ্গ।

তুমি চলে যাও যখন ভুবন মোহন রূপ নিয়ে

আমার বিশ্ব ভুবন আঁধারে আসে ছেয়ে

থেমে যায় যেন আমার যত গান, সুরের মৃদঙ্গ ॥

(১১)

সুখের ঠিকানা আজ খুঁজি না, খুঁজি পথের সীমানা

সুখের ঠিকানা আজ খুঁজি না, খুঁজি পথের সীমানা

এ অন্তবিহীন পথ আমার কেন ফুরায় না।

সুখের আশায় সারাটি জীবন

নীরবে সয়েছি দুখের দহন

চোখের জলে ভেসে গেছে আমার সব সাধনা।

মনের কামনাগুলি মনে

কেঁদেছে শুধু নীরবে গোপনে

বেড়েছে শুধু এই বুকে না পাওয়ার বেদনা ॥

(১২)

আজ এই আঁধারে ভাবছি যখন তোমারে বুকে নিয়ে বেদনা

আজ এই আঁধারে ভাবছি যখন তোমারে বুকে নিয়ে বেদনা

জানি না তুমি তখন কার ঘর আলো করে সুখশয্যা করছ রচনা।

সুখের দিনে ভুলে গেছ বন্ধু এখন

দুখের দিনে কে ছিল তোমার আপন

ফেলে-আসা দিনগুলোর কথা কি তোমার মনে পড়ে না।

কথা ছিল দুজনে মিলে বাঁধব ঘর

সুখে সুখে আজীবন হব দোসর

তোমাকে হারিয়ে আজ আমি আঁখিজলে খুঁজি সান্ত্বনা ॥

(১৩)

ঐ রাতের আকাশের তারারা সাক্ষী তারা জানে

ঐ রাতের আকাশের তারারা সাক্ষী তারা জানে

তোমার জন্য আমি কেঁদেছি কত এই জীবনে।

আমি তো কবেই স্মৃতির অনলে

নিঃশেষ হয়ে গেছি জ্বলে জ্বলে

পড়ে আছে শুধু একটি মৃত ছায়া পেছনে।

যার লাগি আঁখিজলে হল নদী

দূরে দূরে রইল সে বেদরদী

সারাটি জীবন কাঁদাল আমায় সে যে বিনা কারণে ॥

(১৪)

বসনেত্মর এই মাধবী বনে আমি একা কেউ নেই পাশে

বসনেত্মর এই মাধবী বনে আমি একা কেউ নেই পাশে

দুনয়ন ভরা আঁখিজল আমার, আমায় ভুলে গেছে সে।

সবই গেছে, শুধু রয়ে গেছে এই মন

বুকের মাঝে এ অবুঝ ক্রন্দন

হাজার ফুলের পাশে একটি মুখ বারবার উঠে ভেসে।

ফুলের মালা গাথা সারা এ জীবনে

আঁখিজলে মালা গাথি আজ সজল নয়নে

আমার দীর্ঘশ্বাস মিশে যায় শুধু আকুল বাতাসে ॥

(১৫)

এই জীবনটা যদি আবার প্রথম থেকে ফিরে পেতাম

এই জীবনটা যদি আবার প্রথম থেকে ফিরে পেতাম

তোমায় নিয়ে নতুন করে জীবনটাকে সাজাতাম।

তোমায় আমায় চেনাজানা হতে

কেটে গেছে সময়, কখন অজান্তে

ফিরে পেলে সেই হারানো সময়গুলো রাঙিয়ে নিতাম।

পেছনে ফেলে আসা দিনগুলো

নিমেষে কখন স্মৃতি হয়ে গেল

আরো কিছুটা সময় পেলে আরো ভালোবাসতে পারতাম ॥

(১৬)

চলেই যদি গেলে ওগো বন্ধু কেন স্মৃতি রেখে গেলে

চলেই যদি গেলে ওগো বন্ধু কেন স্মৃতি রেখে গেলে

আমাকে পুড়াবে বলে কি গো স্মৃতির অনলে?

কাছের মানুষ দূরে সরে যায়

দিন যায় মাস যায় সময় ফুরায়

শুধু কথা থেকে যায় কাঁটা হয়ে বুকের তলে।

ফুল ঝরে যায়, কাঁটার জ্বালা মুছে না

আগুন নিভে আগুনের জ্বালা নিভে না

গোপনে পুড়ায় অন্তর, নীরবে হৃদয় জ্বলে ॥

(১৭)

নদীর জল জানি একদিন খুঁজে পায় সাগরের মোহনা

নদীর জল জানি একদিন খুঁজে পায় সাগরের মোহনা

আমার চোখের জল আজও পেল না তোমার ঠিকানা।

আজও বসন্ত আসে, ফুটে ফুল

কোকিলের গানে প্রকৃতি হয় আকুল

বুক ভরা কথা নিয়ে আমার কন্ঠ ভাষা খুঁজে পায় না।

আমার আঁখিজলে নদী সাগর হয়

তবুও গলেনি তোমার পাষাণ হৃদয়

চোখের জলে আমি শুধু করে যাই না পাওয়ার সাধনা ॥

(১৮)

তুমি যে আমার সুখ, আমার কল্পনা

তুমি যে আমার সুখ, আমার কল্পনা

আমার আনন্দ, একান্ত প্রিয় ভাবনা।

বৃথাই খুঁজে আমার অন্তর

তোমাকে ভোলার একটু অবসর

তুমি যে আমার ¯^cœ, রঙীন কামনা।

তুমি যে কখন এসে ক্ষণে ক্ষণে

দোলা দিয়ে যাও মনে মনে

তুমি যে আমার গান, সপ্ত সুরের সাধনা ॥

(১৯)

দুঃখ করি না ভালোবেসে দুঃখ পেয়েছি বলে

দুঃখ করি না ভালোবেসে দুঃখ পেয়েছি বলে

আমি তো ভালোবেসেছি তোমায় শুধুই চোখের জলে।

আমি তো দুই নয়নের ধারায়

জানিয়েছি আশীষ ও প্রিয়া তোমায়

সয়েছি না পাওয়ার বেদনা বিরহ ছলে।

যত ব্যথা দিয়েছ দুহাতে

নীরবে সয়েছি আমি বুক পেতে

মনের অনল ঢেকে রেখেছি বুকের আঁচলে ॥

(২০)

কেন যে এত ভালো লাগে তোমারে আমার

কেন যে এত ভালো লাগে তোমারে আমার

নিজেকে প্রশ্ন করে আজও পাইনি জবাব তার।

যত দেখি দু চোখ ভরে

ততই নয়নের তৃষা বাড়ে

মন বলে তুমি আমার শুধুই আমার।

চাঁদের সাথে ফুলের সাথে চলে না

জানি তোমার ওই রূপের তুলনা

তুমি সুন্দর, কত সুন্দর, জানে মন আমার ॥

(২১)

আজ সারা রাত জেগে জেগে কেবল চিঠি লিখেছি

আজ সারা রাত জেগে জেগে কেবল চিঠি লিখেছি

আর নীরবে নয়ন জ্বলে আমি শুধু ভেসেছি।

জানি তোমার সুখের জন্য এবার

ছাড়তে হবে সব দাবি আমার

অশ্রু জলে নীরবে ভালোবাসার ইতি টেনেছি।

ভেবেছি চলে যাব কোথাও অনেক দূরে

যে করে পারি ভুলতে হবে তোমারে

ভালোবাসার এই স্মৃতি ভুলে যেও- সবশেষে লিখেছি ॥

(২২)

এত ভালোবেসে পাইনি তোমার মন রইল দুঃখ কেবল

এত ভালোবেসে পাইনি তোমার মন রইল দুঃখ কেবল

আমি চলে গেলে সেদিন গড়বে জানি এক তাজমহল।

কাছে পেয়েও যার পানে ফিরে তাকাবার

সেদিন মিলেনি কোন অবসর তোমার

সেদিন স্মরণে তার নয়নে তোমার বৃথাই ঝরবে অশ্রুজল।

ডেকে ডেকে তারে বৃথাই হবে সারা

তবু তো সেদিন কেউ দেবে না আর সাড়া

নয়নের জলে সেদিন তোমার মুছবে চোখের কাজল ॥

(২৩)

দিন চলে যায় সুখের আশায় মেলে না সুখের ঠিকানা

দিন চলে যায় সুখের আশায় মেলে না সুখের ঠিকানা

সুখ নামের সুখ পাখিটা কোনদিন ধরা তো দেয় না।

কালের বেলায় তবু বালুকায়

গড়ি যে ঘর বারে বারে ভেঙে যায়

স্বপ্ন জীবনের স্বপ্নই থেকে যায়, মিছেই এত কল্পনা।

আপন ভেবে যখনই যারে বুকে টানি

সেই চলে যায় বুকে আঘাত হানি

প্রেম বলে এই পৃথিবীতে কিছু নেই, জানি সবই ছলনা ॥

(২৪)

যারে খুঁজে আমার এ মন আকুল হয়ে কোথায় তার ঠিকানা

যারে খুঁজে আমার এ মন আকুল হয়ে কোথায় তার ঠিকানা

ওগো বন্ধু এ জীবনে কি আর আমি তার দেখা পাব না ?

এ পথ ও পথ কত পথই তো ঘুরলাম

কত নামেই তো তারে আমি ডাকলাম

এই জীবনে সে কি আর কিছুতেই বুঝি সাড়া দেবে না।

এত সুর এত গান এত রাগ রাগিনী

তারে ছাড়া সবই তো শূন্য বলে জানি

সে কি কোন দিন বন্ধু আমার এ গান শুনতে পাবে না ॥

(২৫)

কত পথ ঘুরে নদী খুঁজে পায় একদিন সাগরের মোহনা

কত পথ ঘুরে নদী খুঁজে পায় একদিন সাগরের মোহনা

আমার নয়ন জলের ধারা আজও খুঁজে পেল না তোমার ঠিকানা।

আমার আশার নদী কেন বারেবারে

পথ হারায় শুধু ধু-ধু বালুচরে-

আমি পথে নেমে পথ হারাই বারেবারে, তোমার দেখা পাই না।

কেউ জানে না এত জল বুকে নিয়ে নদী ধায়

দূর সাগরের সন্ধানে কোন আকুল পিপাসায়

আমার হৃদয় কেন তোমারে ছাড়া বন্ধু কিছু তো আর বুঝে না ॥

(২৬)

নদীর মতো আমি আজ একাই চলি এখন

নদীর মতো আমি আজ একাই চলি এখন

একাই চলতে ভালো লাগে আমার এখন।

ঝরনার মতো নেমে গিরি শিখর হতে

ভেসে যাই আপন স্রোতে

যেদিকে দু চোখ যায় ছুটে যাই অকারণ।

কোন বাধা বন্ধনে জড়িয়ে অহেতুক মনটারে

দুঃখ পেতে চাই না আমি নতুন করে।

হৃদয়ের কান্না কন্ঠ সুরে এক হয়ে

দোলা দিয়ে যাক তোমার হৃদয়ে

আমি তরঙ্গ কলতানে মনের বেদনা করি গোপন ॥

(২৭)

যতবার ভুলে যেতে চাই কেন মনে পড়ে বারেবারে

যতবার ভুলে যেতে চাই কেন মনে পড়ে বারেবারে

দিনরাত স্মৃতি শুধু ফিরে আমায় তাড়া করে।

পোড়া স্মৃতির হাত হতে

যত আমি চাই পালাতে

যতবার চাই ভুলতে ততই নতুন করে মনে পড়ে।

যতবার নিজেরে বুঝাতে চাই, মন বোঝে না কিছুতে

আপনারে তো আপনি পারি না আমি ফাঁকি দিতে।

স্মৃতি শুধু বেদনায় বেদনায়

কেবলই অন্তর পোড়ায়

ভুলতে গিয়েও পারি না ভুলতে, মনে পড়ে যায় তোমারে ॥

(২৮)

আজ কি গান গাব আমি ভাবি এই সুরের সভায়

আজ কি গান গাব আমি ভাবি এই সুরের সভায়

যার লাগি এই গান এই সুর সে আজ কোথায়?

আজ যে সুরেই গান যত গাই না

গান হয়ে ঝরে বুকের চাপা কান্না

হাজার জনের ভিড়ে সেই চেনা মুখটি আজ কোথায়?

কতদিন দুজনায় গেছি গেয়ে

একসাথে কত গান কন্ঠ মিলিয়ে

সবই আজ একে একে ভেসে উঠছে মনের আয়নায় ॥

(২৯)

যতবার ভাবি আমি আর পিছু ডাকব না

যতবার ভাবি আমি আর পিছু ডাকব না

দু চোখের জল আর কিছুতে মানে না মানা।

জানি পিছু ফিরে তাকাবার

নেই তো আজ অবসর তোমার

নয়ন ফেরানো যায় যদি মন তো আর ফেরে না।

একদিন তুমিই তো বলতে তোমার

আমি ছাড়া নেই তো কিছু চাওয়ার

আজ কারে পেয়ে ভুলেছ আমায় আমি জানি না ॥

(৩০)

তোমার আঁখিজলে আমার স্মৃতি মুছে ফেল না

তোমার আঁখিজলে আমার স্মৃতি মুছে ফেল না

আমায় কখনও ভুলে যেও না বন্ধু ভুলে যেও না।

নয়নের আড়ালে

কোনদিন হারিয়ে গেলে

মনের আড়াল আমায় কর না বন্ধু কর না।

না যদি রই তোমার জীবনে

স্মৃতি হয়ে রই যেন তোমার স্মরণে

এইটুকু হোক আজ আমার জীবনে সান্তনা ॥

(৩১)

তোমার হাসি দোলা দিয়ে যাক বন্ধু অধরের কোণে

তোমার হাসি দোলা দিয়ে যাক বন্ধু অধরের কোণে

আমার আঁখিজল ঢাকা থাক বন্ধু গোপনে।

তোমায় সুখী দেখলে

আমি সব দুঃখ যাই ভুলে

¯^cœ শুধু ছড়িয়ে থাক তোমার ও দুটি নয়নে।

আমি তো বেশ আছি বন্ধু আঁধারে

তোমার জীবন আলোয় উঠুক ভরে

আমার দীর্ঘশ্বাস মিশে যাক হাওয়ার সনে ॥

(৩২)

জানি বন্ধু সুখেই আছ তুমি আজ আমায় ভুলে গিয়ে

জানি বন্ধু সুখেই আছ তুমি আজ আমায় ভুলে গিয়ে

তোমার জীবনে আজ আমার প্রয়োজন গেছে ফুরায়ে।

আজ ভুলে গেছ তোমার দুঃখ রাতে

কে ছিল সাথী হয়ে তোমার সাথে

ভুলে গেছ তুমি রাতের দুঃস্বপ্ন প্রভাতে সূর্যোদয়ে।

এমনই হয় বন্ধু এমনই হয়ে যায়

মানুষ একদিন সব ভুলে যায়

যে মনে রাখলো সেই ব্যথা সয়ে যায় ॥

(৩৩)

ভালবাসার বদলে তোমার কাছে পেলাম আখী জল

ভালবাসার বদলে তোমার কাছে পেলাম আখীজল

নয়নের জলে মুছলো আমার আখীর কাজল।

চোখের জলে ভিজেছে বুকের বসন

এত জলে গলেনি তোমার মন

চোখের জলে বুকের জ্বালা বেড়েছে কেবল ॥

আশার বাসা কবে ভেঙ্গে গেছে

ভালবাসা তবু আজও জেগে আছে

আখীজলে বুকে আমি গড়েছি তাজমহল ॥

(৩৪)

ভালবেসে যদি ভুল করে থাকি ক্ষমা করে দিও

ভালবেসে যদি ভুল করে থাকি ক্ষমা করে দিও

কাছে এসে যদি আঘাত দিয়ে থাকি ভুলে যেও ॥

তোমার চলার পথে

আর তো আসবনা কাটা হতে

তোমার স্মৃতির কাটা বুকে নিয়ে বিদায় নিলাম প্রিয় ॥

যদি কোনদিন ভুল করে হায়

আমাকে তোমার মনে পড়ে যায়

মনে করো এ মনের ভুল, ভুল করে ভুলে থাকি ও ॥

(৩৫)

আমার ভালবাসার রঙ মুছে দিয়ে তোমার মেহেদী রাঙা হাতে

আমার ভালবাসার রঙ মুছে দিয়ে তোমার মেহেদী রাঙা হাতে

তুমি চলে গেছ আজ নতুন করে বাসর সাজাতে ॥

জানি আজ কেটে যায় মধু গুঞ্জনে

তোমার প্রহর নতুন সাথীর সনে

আখিজলে ভেসে আমার কাটেনা যেন সময় কিছুতে ॥

তোমার চোখে কাজল, নতুন জীবন

আমার চোখে জল,শূন্য ভুবন

আমি বসে ভাবি আখিজলে ফেলে যাওয়া স্মৃতি নিরালাতে ॥

(৩৬)

যদি দাও এতটুকু অধিকার তোমার ভুবনে আমি দীপ জ্বালাবো

যদি দাও এতটুকু অধিকার তোমার ভুবনে আমি দীপ জ্বালাবো

তোমার শূন্য ঘরখানি আমি হাসি গানে ভরে দেব ॥

হৃদয়ের নিতি নব নব অনুরাগে

ভালবাসার আদর সোহাগে

তোমার শূন্য হৃদয় আমি রঙে রঙে রাঙাবো ॥

আমার ভালবাসা দিয়ে

তোমার সব দুঃখ দেবো ঘুচিয়ে

তোমার দুচোখে স্বপনের আবেশ ছড়িয়ে দেবো ॥

(৩৭)

ভালবেসে তোমার কাছে শুধু আঘাত পেলাম

ভালবেসে তোমার কাছে শুধু আঘাত পেলাম

আমি আখিজলে ভালবাসার মূল্য দিয়ে গেলাম ॥

হৃদয় নিয়ে করলে পরিহাস

ভালবাসাকে ভাবলে দুদিনের বিলাস

এই মন দেয়ানেয়ার খেলায় আমি হেরে গেলাম ॥

সব দিয়ে আমি গেছি নিঃস্ব হয়ে

তুমি ছাড়া নাই কিছু এই হৃদয়ে

বুকের অনলে আমি শুধু একাকী পুড়ে মরলাম ॥

(৩৮)

যদি পারো এসে দেখে যেও একবার

যদি পারো এসে দেখে যেও একবার

তোমার শত কাজের মাঝে

তোমার মাধবী আজ ও মরেনি,

শত কষ্টে ও বেচে আছে ॥

বুক ভরা তার কান্না তবু কাদা যাবে না

তার দুঃখ সুখ নিয়ে কেউ ভাবে না

তুমি এলে তবু সে জানবে তার ব্যথার দরদী একজন আছে ॥

সোনার খাচায় বন্দী পাখীর মতন

সব থেকেও সুখী নয় তার মন

দূরের আকাশ বৃথাই হাতছানি দিয়ে তারে বারেবার ডাকে কাছে ॥

(৩৯)

দিন চলে যায় সুখের আশায় মেলে না সুখে র ঠিকানা

দিন চলে যায় সুখের আশায় মেলে না সুখে র ঠিকানা

সুখ নামের সুখ পাখীটা কোন দিন ধরা দেবে না ॥

কালের বেলায় তবু বালুকায়

গড়ি যে ঘর বারেবারে ভেঙে যায়

স্বপ্ন জীবনে স্বপ্নই থেকে যায়,মিছেই এত কল্পনা ॥

জানি পৃথিবীতে কেউ নয় আপন, সবাই পর

মনের টানে তবু ভাবি যারে দোসর

মায়ামৃগ হয়ে সে যে হারায়, ধরে রাখা যায়না ॥

(৪০)

জানি এই পৃথিবীতে চোখের জলেই মিলে মনের দাম

জানি এই পৃথিবীতে চোখের জলেই মিলে মনের দাম

দুঃখই এ জীবনে জানি ভালবাসার পরিণাম ॥

জানি এই পৃথিবীতে কেউ কারো নয়

তবু তোমার হৃদয়ে রাখলাম এ হৃদয়

তবু হৃদয়ের সব সুর সব গান তোমায় দিলাম ॥

তোমায় ভালবেসে দুঃখ পেতে

সব দিয়ে আমি শূন্য হতে

ওগো বন্ধু তোমায় আমি তাইতো ভালবাসলাম ॥

(৪১)

জানি শুধু দুঃখ দিতে তুমি এসেছিলে আমার জীবনে

জানি শুধু দুঃখ দিতে তুমি এসেছিলে আমার জীবনে

তবু পোড়া মন সুখের স্বপন দেখেছিল গোপনে ॥

তোমায় পেয়ে আমি প্রথম বুঝলাম

এতদিন আমি একা বড় একা ছিলাম

সেই তুমিই আবার আমায় একা করে হারালে কোনখানে ॥

একা ছিলাম বেশ তো ছিলাম তখন

ভেবেছিলাম এভাবেই কাটবে জীবন

তুমি কেন ক্ষণিকের সুখ স্বপন হয়ে এসেছিলে আমার জীবনে ॥

(৪২)

বলে গেছ ভুলে যেতে ভুলতে কই পারলাম

বলে গেছ ভুলে যেতে ভুলতে কই পারলাম

ভুলতে গিয়ে শুধু বারবার ভুল করলাম ॥

স্মরণের প্রান্তে

মনেরই অজান্তে

তোমারই ছবি শুধু আমি বারবার আকঁলাম ॥

কতবার আখিজল দিয়ে

তোমার স্মৃতি মুছতে গিয়ে

নিজেই আমি আখিজলে শুধু ভাসলাম ॥

(৪৩)

সময় ফুরিয়ে গেছে, ভেঙে গেছে আশার স্বপন

সময় ফুরিয়ে গেছে, ভেঙে গেছে আশার স্বপন

স্মৃতি শুধু জেগে আছে অন্তরে,কাদায় এ অবুঝ মন ॥

ভালো লাগে না আর একা একা

মিলন বাসরের স্বপ্ন দেখা

বিরহই যেন আজ সত্য আমার জীবনে এখন ॥

দীপ নিভে গেছে, জেগে আছে আখী

অন্তরে জ্বলে শুধু স্মৃতির জোনাকি

ফিরে কি পাবনা আর হাসি গানে ভরা সে জীবন ॥

(৪৪)

জানি আমার জীবনে স্বপ্ন দেখা শুধুই বিফল

জানি আমার জীবনে স্বপ্ন দেখা শুধুই বিফল

আমার দুঃখে কেউ কখনো ফেলেনি অশ্রুজল॥

একা একা জীবনের আধারে আধারে

আমিতো পথ হারাই বারেবারে

আলোর ঠিকানা কভু তো মেলে না, শুধু আলেয়ার ছল ॥

স্বপ্ন দেখে দিন তো গেলো,পেলাম না তো কিছু

দুঃখই শুধু ফিরলো আমার পিছু পিছু

না পাওয়ার বেদনা ভরা স্মৃতিই আজ আমার সম্বল ॥

(৪৫)

ভুলে গেছি ভেবে ভুল করি, ফাকি দেই শুধু নিজেকে

ভুলে গেছি ভেবে ভুল করি, ফাকি দেই শুধু নিজেকে

তোমার স্মৃতি যে পিছু ডাকে,ভুলতে পারি না তোমাকে।

নতুন পথে চলতে নব পরিচয়ে

কতজন তো ধরা দেয় এই হৃদয়ে

এক সময় ভুলে যাই সবই,ভোলা শুধু যায়না তোমাকে ॥

তুমি যে নিত্য নতুন বেশে

ধরা দাও এই হৃদয়ে এসে

কত দূরে আছো তুম, তবু জুড়ে আছো এই মনটাকে ॥

(৪৬)

মিছেই বসে আছি খুলে মনের দুয়ারখানি

মিছেই বসে আছি খুলে মনের দুয়ারখানি

আমার শূন্য জীবনে সেতো আর ফিরে আসবেনা জানি ॥

উতলা এই রাত আবার নতুন করে

হারানো স্মৃতি জাগিয়ে দিলো অন্তরে

নীরবে ঝরে পড়লো পোড়া চোখে দুফোটা চোখের পানি ॥

মনে পড়লো আরো একবার

কত যে বিফল এই জীবন আমার

শূন্য করে দিয়ে গেছে সে যে এই বুকের কতখানি ॥

(৪৭)

এই মন হয় রঙিন তোমার কাছে এসে

এই মন হয় রঙিন তোমার কাছে এসে

কথাগুলো গান হয় তোমাকে ভালবেসে ॥

এই নয়নে যখন রাখো দুনয়ন

এই কাধে হাত রাখো যখন

মন হারায় কোন স্বপনের অজানা দেশে ॥

তুমি ছাড়া এই জীবনে আমার

নাই তো কিছু অধিক চাওয়ার

তোমার ছোয়ায় মন ভরে যায় সুখের আবেশে ॥

(৪৮)

আজ তোমার কথা ভেবে অনেকক্ষণ আমি কাদলাম

আজ তোমার কথা ভেবে অনেকক্ষণ আমি কাদলাম

আজ সারা দিন তোমার কথাই আমি ভাবলাম শুধু ভাবলাম ॥

হারানো দিনের কথা যত

হৃদয়ে ভেসে উঠে ছবির মত

ফেলে আসা দিনের স্মৃতির মাঝে তোমায় আমি খুজলাম ॥

যতই তুমি চলে গেছ দূর হতে দূরে

ততই নিয়েছ আসন এই হৃদয় জুড়ে

বেদনার মাঝে তোমায় আমি নতুন করে কাছে পেলাম ॥

(৪৯)

যতই আমি সমুখের পথে চলি কে যেন পিছু ডাকে

যতই আমি সমুখের পথে চলি কে যেন পিছু ডাকে

কার যেন সজল করুণ দুটি চোখ পিছে চেয়ে থাকে॥

যত ভাবি এ মনের ভুল

মন তবু হয় আকুল

এই মন বারবার জানিনা কেন পিছু টানে আমাকে ॥

জানিনা কোন অজানা বাধনে

পড়ে আছি বাধা কোনখানে

কে সে কে সে মনের গভীরে আমি খুজে ফিরি তাকে ॥

(৫০)

আমার দুচোখ হাজার ভীড়ের মাঝে

আমার দুচোখ হাজার ভীড়ের মাঝে

চোখের জলে ওগো বন্ধু তোমারেই খুজে ॥

নয়নের সমুখে তুমি নেই জানি

স্মরণে ভেসে উঠে মায়াভরা মুখখানি

আমারে কাদায়ে চলে গেছ আপন সুখের খুজে ॥

যারা পায়নি তাদের বুঝার কথা নয়

পেয়ে হারানোর ব্যথা কত যাতনাময়

আমি যে তোমায় পেয়ে হারিয়েছি ভুলতে পারি না যে ॥

(৫১)

ভালবেসে যদি দুঃখ পাই

ভালবেসে যদি দুঃখ পাই

তবুও জীবনে একবার ভালবাসব,

হৃদয়ের পরশ দিয়ে একটি হৃদয় জাগাবো ॥

আমায় দুঃখ দিয়ে কেউ পেতে চাইলে সুখ

তারে ও আমি করবো না বিমুখ

কাটার আঘাত সয়েও অন্তত একটি ফুল আমি ফুটাবো ॥

এ হৃদয় নিঃস্ব করে বিশ্ব যদি কেউ চায়

তার হাতে তুলে দেব বিশ্বটা অবলীলায়

নিজেরে পুড়ায়ে হলে ও একটি দীপ আমি জ্বালাবো ॥

(৫২)

এক বরষায় তুমি ছিলে কত কাছে আমার

এক বরষায় তুমি ছিলে কত কাছে আমার

এই বরষায় বন্ধু তুমি আজ কোথায়?

সেই দিনগুলো গানে আর গানে

আমরা কাটিয়েছি দুজনে

আজ আমি একা বসে কাদি নিরালায় ॥

শ্রাবণের ভেজা হাওয়া

কাননে কাননে যায় কাদিয়া

স্মৃতি শুধু নীরবে আমার মনকে পোড়ায় ॥

(৫৩)

যারে এই মন চায় সে কেন বারেবারে আমায় কাদায়

যারে এই মন চায় সে কেন বারেবারে আমায় কাদায়

কাছের মানুষ কেন দূরে সরে যায় ॥

যার পথ চেয়ে কাটে আমার বেলা

সে কেন করে আমায় অবহেলা

চোখের জলে কেন বুকের স্বপ্ন মুছে যায় ॥

ভালবাসা চাইতে না হয় মানা

ভালবাসতে ও মানা, ছিল না জানা

চোখের জলে আজ তার মূল্য দিতে হল হায় ॥

(৫৪)

জানি জানি আসবেনা তবু দুয়ার রাখবো খুলে

জানি জানি আসবেনা তবু দুয়ার রাখবো খুলে

তোমার আসার আশায় রইবো আখি মেলে ॥

ঐ প্রদীপ শিখার মত

নিজেরে জ্বালায়ে অবিরত

তোমার তরে রাখবো আলোক প্রদীপ জ্বেলে ॥

তোমায় দিয়ে ফুলের মালা

নিলাম আমি কাটার জ্বালা

ভালবাসার মূল্য দিয়ে গেলাম আখিজলে ॥

(৫৫)

আমি আখিজলে ভালবাসার মূল্য দিয়ে গেলাম

আমি আখিজলে ভালবাসার মূল্য দিয়ে গেলাম

ভালবেসে আমি কাদলাম শুধু কাদলাম ॥

সে যে মিছেই আমায় ভুল বুঝলো

অকারনে দুঃখ দিয়ে চলে গেল

কেন যে তারে এত আপন ভেবেছিলাম ॥

কথা দিয়ে সে যে কথা রাখেনি

ব্যথা দিয়ে চলে গেছে আর ফেরেনি

বুকের আগুনে আমি একাই শুধু জ্বললাম ॥

(৫৬)

আমার আখির কাজলের প্রশংসা করলো সবাই

আমার আখির কাজলের প্রশংসা করলো সবাই

আমার নয়ন ভরা আখিজল কেউ দেখে নাই ॥

কোন সে বেদনায় কাদছে মন

ভাবার কারো নাই অবসর তেমন

আচল দিয়ে আমার অশ্রু মুছে দেয়ার কেউ নাই ॥

আমার হাসিতে নাকি বিশ্ব ভুলে

সব ব্যথা বেদনা ওরা নাকি যায় ভুলে

হাসির আড়ালে লুকানো কান্না কেউ দেখে নাই ॥

(৫৭)

জানি জানি তুমি তো আমায় ভেবেছ কেবল পর

জানি জানি তুমি তো আমায় ভেবেছ কেবল পর

আমি তো রয়েছি তোমারই হয়ে জনমভর ॥

আজ ও তোমার আপনজনারে

চিনতে পারলে না আপন করে

তুমি রাখলে নাতো তার মনের খবর ॥

যে তোমারে দিল সবই সপে

তারে দিলে আখিজল দুচোখ ভরে

ভালবাসার ও তারে তুমি দিলে অবসর ॥

(৫৮)

চোখের জলে কবে মুছে গেছে আখির কাজল

চোখের জলে কবে মুছে গেছে আখির কাজল

আজ ও তবু ফুরালো না আমার আখিজল ॥

যে গেছে চলে এ হিয়া দলে

সে তো ফিরবে না চোখের জলে

তার লাগি কেন নয়ন হতে ঝরে অশ্রু বিফল ॥

তবু ব্যর্থ আখিধারে

এ আখি ভিজে উঠে বারেবারে

নয়ন হতে শুধু আখিজল ঝরছে কেবল ॥

(৫৯)

চন্দনা তুমি চলে গেছ ফিরে আসার করে ছল

চন্দনা তুমি চলে গেছ ফিরে আসার করে ছল

মনের অজান্তে ঝরল আমার কফোটা আখিজল ॥

যেমনটা ছিল সবই তেমন আছে

খোলা দুয়ারটা তেমনই খোলা রয়েছে

যে দিকে তাকাই সব কিছুতে যেন পরিহাসের ছল ॥

চন্দনা তোমার রয়েছে পথ আছে ঠাই

আমার যে বিশ্ব ভুবনে তুমি ছাড়া কেউ নাই

তাই তো বসে থাকি প্রতীক্ষায়, অপেক্ষাই সম্বল॥

(৬০)

ভুল হয়েছিল বলে

ভুল হয়েছিল বলে

জানি জানি ভুলে গিয়ে প্রতিশোধ নিলে ॥

না শুনে মিনতি আমার

না শুনে বারণ আমার

ক্ষমাহীন অভিমানে গিয়েছ চলে ॥

যত দিয়েছিলে ব্যথা

ভুলেছি সে সব কথা

ভুলিনি শুধু পাইনি ক্ষমা চোখের জলে ॥

(৬১)

তুমি চলে গেছ, তবু বিরহ সুখে ভরে আছে এ হৃদয়

তুমি চলে গেছ, তবু বিরহ সুখে ভরে আছে এ হৃদয়

জানো তো ভালবাসা মানে না কখন ও পরাজয় ॥

যে শুধু দিয়ে গেল, পেল না কিছু বিনিময়ে

ভেব না সে শুধু গেল নিঃস্ব রিক্ত হয়ে

যত দিয়ে গেছি ততই পূর্ণ হয়ে উঠেছে হৃদয় ॥

নয়নের আড়ালে চলে গেছ যত দূরে

ততই পেয়েছি হৃদয়ে নতুন করে

তোমারই বিরহে আমার ভুবন হয়েছে আরো মধুময় ॥

(৬২)

সে চলে গেছে, আমায় একা ফেলে গেছে

সে চলে গেছে, আমায় একা ফেলে গেছে

বলার মত আজ আমার একটি কথাই আছে ॥

আমার অবুঝ দুনয়ন

ভরা ছিল যত মধুর স্বপন

বন্ধু আজ সবই মিথ্যে হয়ে গেছে ॥

এই প্রেম এই তনু-মন হিয়া

কিছুই পারেনি তারে রাখতে ধরিয়া

আপনার সুখটারে সে বড় করে দেখেছে ॥

(৬৩)

মাধবী তুমি কোথায় আছো কেমন আছো জানিনা

মাধবী তুমি কোথায় আছো কেমন আছো জানিনা

শুধু তুমি সুখে থেকো এই তো আমার কামনা ॥

তোমার সুখের জন্য ঘর ছেড়েছি

আখিজলকে চলার সাথী করেছি

তুমি মিছেই বন্ধু আমায় ভুল বুঝ না ॥

যেদিন তোমায় ভালবেসেছি

তোমার সুখকে সুখ বলে জেনেছি

তাইতো এত সহজে মেনে নিয়েছি হারানোর বেদনা ॥

(৬৪)

ভুলে যাওয়ার বন্ধু ওগো জানি ভুলবে আমায় দুদিন যেতে

ভুলে যাওয়ার বন্ধু ওগো, জানি ভুলবে আমায় দুদিন যেতে

মনের আড়াল হয়ে যাব তোমার নয়নের আড়াল না হতে ॥

এ মন তবু দুরাশায় বারেবারে

হাত পাতে তোমার দুয়ারে

দুদিনের তরে তোমার স্মৃতি ভিক্ষা মাগে একান্ত ইচ্ছাতে ॥

সারা জনমের সবটুকু আখিজলে

চেয়ে যাই এতটুকু ঠাই তোমার হিয়াতলে

ভুলে যেতে চাই ভুলে যাওয়ার দুঃখ ক্ষণিকের ছলনাতে ॥

(৬৫)

বন্ধু তুমি চিরদিনই ভাবলে আমায় শুধু পর

বন্ধু তুমি চিরদিনই ভাবলে আমায় শুধু পর

তোমার ভাবনা ভাবতে আমায় দিলে না অবসর ॥

কাছে থেকে ও রইলে দূরে দূরে

হৃদয়টাকে আড়াল করে--

আজ ও আমি পাইলাম না তোমার মনের খবর ॥

এত করে তোমার মনের ঠিকানা

আজও আমার রইল অজানা

দুজনার ব্যবধান ঘুচল না জীবনভর ॥

(৬৬)

কতবার ভেবেছি ভুলে যাব, হলো না তো ভুলে থাকা

কতবার ভেবেছি ভুলে যাব, হলো না তো ভুলে থাকা

আমার হৃদয় জুড়ে শুধু যে তোমারই ছবি আকা ॥

যত ভাবি ভুলে যাব নতুন করে

ততই মনে পড়ে যায় তোমারে

তোমার অভাবে এ বিশাল পৃথিবীটা মনে হয় ফাকা ॥

বহতা নদীকে তো বেধে রাখা যায় না

মনের বাসনা তেমনই চাপা থাকে না,

হৃদয়ের এই আকুলতা যায় না তো কিছুতে ঢেকে রাখা ॥

(৬৭)

দূরে যত চলে গেছ, ততই নতুন করে তোমায় পেয়েছি

দূরে যত চলে গেছ, ততই নতুন করে তোমায় পেয়েছি

দূর হতে মনে মনে আমি তোমারেই খুজেছি ॥

মনের অজান্তে আমি যে কখন

চরণে তোমার সপে দিয়েছি প্রাণমন

তোমারই কথায় আমার গানগুলো সাজিয়েছি॥

তুমি আছো তাই এই গান, এই সুর

তাই এই জীবন আজ ও সুমধুর

তোমার মাঝে আমার স্বপ্ন আমি খুজে পেয়েছি॥

(৬৮)

যেখানে থাকো না যত দূরে তুমি আমারই শুধু জানবো

যেখানে থাকো না যত দূরে তুমি আমারই শুধু জানবো

তোমারই স্মৃতি বুকে নিয়ে আমি বেচে থাকবো ॥

যদি নয়নের আড়ালে

কখন ও যাও চলে

মনে মনে আমি তোমরই ছবি শুধু আকবো ॥

পর ভেবে যতই দাও পর করে

আপন কি কভু পর হতে পারে

জীবনে মরণে জেনো আমি শুধু তোমারই থাকবো ॥

(৬৯)

জানি এ জীবনে তোমায় পাবনা আপন করে কোনদিন

জানি এ জীবনে তোমায় পাবনা আপন করে কোনদিন

নয়নের জলে তবু তোমায় চেয়ে গেলাম চিরদিন ॥

চোখের জলে বাসর বাধিয়া

কাটালাম রাত একা রাত জাগিয়া

মিলনের স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গেল, সত্যি হল না ॥

জানি এ প্রেম দূর অতীতের

তোমার কাছে স্মৃতি ক্ষণিকের,

এ ভালবাসাই আমার জীবন, আমি জানবো চিরদিন ॥

(৭০)

আমায় ভুলে গিয়ে বন্ধু তুমি সুখে করছ ঘর

আমায় ভুলে গিয়ে বন্ধু তুমি সুখে করছ ঘর

তোমায় ভালবেসে আমি হলাম যাযাবর ॥

তোমার চোখে স্বপ্ন কাজল

আমার চোখে আজ অশ্রুজল

আমি আখিজলে আজ বেধেছি স্বপ্ন বাসর ॥

তোমার কন্ঠে আজ মিলনের গান

আমার কন্ঠে অশ্রুভরা অভিমান

আমার বুক জুড়ে আজ স্মৃতির ঝড় ॥

(৭১)

কত আখিজল ঝরালে আর

কত আখিজল ঝরালে আর

বল প্রিয় বল পাব আমি দেখা তোমার ॥

স্মৃতি হয়ে আজ ও আছো স্মরণে

নয়ন তবু কাদে ক্ষণে ক্ষণে

স্মরণে পেয়ে মিটে না নয়নের তৃষা আমার ॥

ফুলের ডোর ছিড়ে যায় এক সময়

মনের বাধন কভু ছিন্ন হবার নয়

সেই বাধনে পড়েছে বাধা হৃদয় আমার ॥

(৭২)

কত পথ ঘুরে নদী খুজে পায় একদিন সাগরের মোহনা

কত পথ ঘুরে নদী খুজে পায় একদিন সাগরের মোহনা

কেবল তোমার আমার আর দেখা হবে না আমি মানি না ॥

এ প্রেম যদি সত্য হয়

সত্য হয় এই পরিচয়

তোমার আমার দেখা হবেই একদিন ভুল হবে না ॥

চোখের জলে ভেসে ভেসে

দেখো একদিন অবশেষে

আমার এ মন খুজে পাবে তোমার মনের ঠিকানা ॥

***

***

রেট ও রিভিউ

আপনিই প্ৰথম রিভিউ লিখুন